১০ নেগেটিভ থিংকিং : যে নেগেটিভ থিকিংগুলো আমাদের পিছনে ফেলে দিচ্ছে

১) অন্যের সফলতা দেখে আমরা নিজেরা  হিংসায় জ্বলে পুড়ে মরি 🔥  অথচ তার আর আমার পরিশ্রমের পার্থক্য কতটুকু তা নিয়ে একবারও ভাবিনা। তাই হিংসাকে শক্তিতে পরিণত করুন। 

Don't compare, Be a competitor.

২) "আমি আরো ভালো কিছু ডিজার্ভ করি" - এইধরনের চিন্তা ধারা থেকে বের হতে হবে। আপনি তাই ডিজার্ভ করেন যা আপনি পেয়েছেন।

৩) "আমি একা, আমার ফ্রেন্ড নাই।"  এই ভেবে মন খারাপের কিছু নাই। খারাপ সঙ্গের চেয়ে একা থাকাই ভালো। কখনও কখনও Loneliness is a blessing.

৪)  কিছু মানুষকে কখনই হ্যাপি করতে পারবেন না।  চারপাশে কিছু মানুষ এমন থাকবেই। তবে সংখ্যাটা বেশি হয়ে গেলে বুঝতে হবে এখন নিজেদের বদলানোর সময়ে এসেছে।

৫) দাম্বিকতা বা  অহংকার কখনই ভালো জায়গায় নিয়ে যেতে পারেনা। তাই কোনো কাজে কোনো সময় ইগো রাখা যাবেনা।

৬) অজুহাত দেয়া বন্ধ করতে হবে।

Don't be the Problem, Be the Solution

৭) চিল্লাইয়া কি মার্কেট পাওন যাইব? 🤔 কখনই না ! কথায় আছে - তাই মাথা ঠান্ডা রেখে কাজ করতে হবে। রেগে গেলেন তো হেরে গেলেন।

৮) আমরা তখনই কোনো কাজে ভয় পায় যখন সে কাজ সম্পর্কে আমাদের আগে থেকে পর্যাপ্ত প্রিপারেশন থাকেনা। যেমন যদি  কিছু না পড়ে পরীক্ষা দিতে যাই, ফেল করার ভয় তো থাকবেই। কিন্তু যদি সব কমপ্লিট করে একদম ফিটফাট হয়ে পরীক্ষার হলে বসি, তখন কি ভয় লাগবে? তাই ভয়কে পূর্বের কাজের মাধ্যমে জয় করতে হবে।

৯) গার্লফ্রেন্ড বয়ফ্রেন্ড চলে গেলে, ছ্যাকা খেয়ে ডিপ্রেশনে চলে গেলে হবে না। কেউ ছেড়ে যাবার আগেই সিগন্যাল দিতে থাকে। নিজেকে আগে থেকেই বুঝতে হবে প্রিয় মানুষ আমাকে ছেড়ে যাবার সম্ভাবনা কতটুকু।

১০) Procrastination:  শুধু পরিকল্পনা করে বা করবো করবো করে  সময় নষ্ট করলে হবেনা। পরিকল্পনা Execute করতে হবে। আপনি কখনই রুটিন করে তা ১০০% সফলভাবে কমপ্লিট করতে পারবেন না।


© Jhankar Mahbub 

Post a comment

0 Comments