২০২০ সালের সেরা ৭ ভিডিও গেম

ব্যক্তি এবং প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে হাজার হাজার ভিডিও গেম প্রকাশিত হয়ে থাকে বিভিন্ন প্লাটফর্মে। হাজারো গেমের মধ্যে কিছু গেম তাদের অসাধারণ পারফরম্যান্সের কারণে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। আর অধিকাংশই থেকে যায় অগোচরে। চলতি বছরের সেরা গেমগুলো নিয়ে আজকের আয়োজন।

১। গ্র্যান্ড থেফট অটো ফাইভ: উদ্বোধনের ৬ বছরেও বরাবরের মতো শীর্ষ স্থানটি ধরে রেখেছে রকস্টারের গ্র্যান্ড থেফট অটো ফাইভ। চমৎকার গানপ্লে, ডেডিকেটেড ড্রাইভিং রেসিং গেমগুলোর মতো দুর্দান্ত ফিচার রয়েছে। প্রতি সপ্তাহে রকস্টার তাদের গেমটি আপডেট করছে যেখানে নিয়মিত যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন ইভেন্ট, যানবাহন এবং ডায়মন্ড ক্যাসিনোর মতো কোডযুক্ত বিভিন্ন মিনি গেমস।

২। কাউন্টার-স্ট্রাইক: গ্লোবাল অফেনসিভ: কাউন্টার-স্ট্রাইক: গ্লোবাল অফেনসিভ সর্বাধিক জনপ্রিয় ই-স্পোর্টস এবং পিসি শুটারস গেমগুলোর একটি। খুব দ্রুততম হত্যার বিষয়টি গেমটিকে শক্ত করে তুলেছিল। গেমটি বেশ কঠিন খেলা হিসেবেও পরিচিতি থাকলেও ৭ বছরে এসে এটি অনেকটাই আপডেট করা হয়েছে। যারা নতুনভাবে খেলতে চাই তাদের জন্য অত্যন্ত সুবিধার হবে গেমটি।

৩। ফোর্টনাইট: ফোর্টনাইট সমর্কে বলার মতো তেমন কিছুই নয়। ফোর্টনাইট গেমের নাম শোনেননি এমন গেমার খুজে পাওয়া মুশকিল। এছাড়া, পরিবারের বয়োজেষ্ঠ্য সদস্যদের মুখেও এ জনপ্রিয় গেমটির নাম শুনে থাকবেন নিশ্চয়ই। বিনামূল্যে খেলার গেম হিসাবে আপনি ফোর্টনিট চেষ্টা না করার কোনও কারণ নেই। এটি প্রতিটি বর্তমান-প্রজন্মের কনসোল, পিসি এবং মোবাইল ডিভাইসেও চলবে।

৪। কল অফ ডিউটি: ওয়ারজোন/মডার্ন ওয়ারফোর: কল অফ ডিউটি নিজেই একটি দুর্দান্ত খেলা। যেখানে অতিতের সত্যিকারের যুদ্ধগুলোর পেক্ষাপট অবলম্বনে। যা খেলতে ৬০ ডলার খরচ করতে হতো। তবে এখন গেমটি ফ্রি খেলা যাবে।

৫। রেড ডেড রিডেমশন২: যদিও জিটিএ ভি রকস্টারের সবেচেয়ে লাভজনক গেম। রেড ডেড রিডেমশন২ স্টুডিওর ম্যাগনাম অপস যা আরডিআরের পূর্বসূর। গেমটি যুগে যুগে ঘটে যাওয়া দুর্দান্ত কাহিনীর চমৎকার বাস্তব ফটো ভিজ্যুয়াল। যা ব্যবহারকারীর মনোযোগ আকর্ষণ করে। পিএসফোর এবং এক্সবক্স ওয়ানে ব্যবহার করা যাবে রেড ডেড রিডেমশন গেমটি।

৬। লিগ অফ লিজেন্ডস: লীগ অফ লিজেন্ডস গেমটি প্রায় এক দশক ধরে চলছে। এমনকি এটি হার্ডকোর এবং ক্যাজুয়ালের সেরা সমন্বয় হিসেবে রয়ে গেছে। গেমটি সময়ের সঙ্গে নিজেদের আরও আধুনিক করে তুলেছে। ঘুরতে ঘুরতে সংগ্রহ করে খেলা যাবে কোন ধরনের টাকা খরচ ছাড়া। তবে পুরো রোস্টার পেতে হলে অর্থ ব্যয় করতে হবে। গেমটির বৈচিত্র হলে আপনাকে ব্যস্ত রাখবে ঘণ্টার পর ঘণ্টা।

৭। দ্যা উইচার৩: ওয়াইল্ড হান্ট: যদিও প্রথম দুটি উইচার গেমস ভাল ছিল তবে উইটার৩: ওয়াইল্ড হান্ট তার থেকেও ব্যতিক্রমী। সিডি প্রজেক্ট আরও অনেক মনোরম অভিজ্ঞতা হিসাবে পরিমার্জন করেছে রেড যুদ্ধের মেকানিক্সকে। যেখানে শুধু আরপিজি কাস্টমাইজেশনে ভরা। যদিও শো এর তারকারা বিশ্ব এবং গল্প জুড়ে বিস্তৃত। আকর্ষণীয় চরিত্র আর পার্শ্ব গল্পে ভরা গেমটির কাল্পনিক জগৎ।


সূত্র: ডিজিটাল ট্রেন্ডস

Post a comment

0 Comments